শ্রেণিকক্ষে বসা নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৬

ফেনী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে আজ বুধবার ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে বহিরাগতসহ অন্তত ছয় নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে আটক করেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার দুপুরে তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী সাকিব ও আরাফাতের মধ্যে শ্রেণিকক্ষে বসা নিয়ে তুমুল বাগি¦তন্ডা হয়। এর জের ধরে ক্যাম্পাসে সাকিব তার এক সহযোগী নাইমকে নিয়ে কয়েকজনকে জড়ো করে। একপর্যায়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপ মুখোমুখি হলে উভয়পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এসময় তোফায়েল আহম্মদ অপু, সাইদুর রহমান সাকিব, মানিক, তাওহিদুল, হৃদয় ও আরিফসহ কয়েকজন আহত হয়। আহতদের ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

খবর পেয়ে ফেনী মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এসময় পলিটেকনিকের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী ছাগলনাইয়ার মন্দিয়া গ্রামের নাইমুল হাসান, তৃতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থী সেনবাগের মোটবী গ্রামের নাজমুল ইসলাম, পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী শান্তিধারা আবাসিক এলাকার শাহরিয়ার হোসেন ও বিরিঞ্চি এলাকার খন্দকার বাড়ির ফরিদি হাসানকে আটক করা হয়।

ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আরএমও ডা: আবু তাহের পাটওয়ারী জানান, আহতদের মধ্যে তিনজন চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদের মধ্যে অপুর অবস্থা গুরুতর। তিনি শহরের ফালাহিয়া শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি বলে সংগঠন সূত্র জানিয়েছে।

ফেনী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান খান জানান, তার ক্যাম্পাসে কোনো ধরনের ঘটনা ঘটেনি। পলিটেকনিক সংলগ্ন সড়কের বিপরীত পাশে কয়েকজন ছেলে ঝামেলা করেছে বলে তিনি শুনেছেন।

ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে ছুটে যান। সেখান থেকে চারজনকে আটক করা হয়।

Comments

comments