বিদেশে বোলিংয়ের সময় মিরাজের কী লক্ষ্য থাকে জানেন?

ঘরের মাঠে বাংলাদেশ টেস্ট খেলতে নামলে স্পিনারদের ওপরই থাকে আসল দায়িত্ব। কিন্তু বিদেশে টেস্ট খেলতে গেলে এই চিত্র বদলে যায়। মেহেদী হাসান মিরাজ জানালেন বিদেশে স্পিনার হিসেবে পরিকল্পনা ও ভূমিকাও বদলে যায় তার।

ঘরের মাঠে শেষ দুই বছরে পেসারবিহীন একাদশ নিয়ে একাধিকবার খেলেছে বাংলাদেশ। কিন্তু বিদেশে গেলে স্পিনাররা সেভাবে সুবিধা করতে পারেনি। এমনকি ইদানীং ভারতের মাটিতেও আর স্পিনারদের দাপট নেই সেভাবে। ছড়ি ঘুরাচ্ছে পেসাররাই।

ইন্দোর টেস্টে যেমন ভারত এক ইনিংসে ব্যাট করে বাংলাদেশকে হারিয়েছে ইনিংস ব্যবধানে। মিরাজ ২৭ ওভার বল করে ১২৫ রান খরচায় ১টির বেশি উইকেট পাননি। সোমবার অনুশীলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মিরাজ বললেন এই বিষয়টি নিয়ে।

২২ বছর বছর বয়সী অফ স্পিনার বলেন, ‘হোমের চেয়ে আমি যখন বাইরে খেলতে যাই, আমাকে একটা জিনিস বলা হয়েছে যে রান রেটটা ফলো করার জন্য। শেষ ম্যাচে দেখেন ওরা কিন্তু অনেক আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করেছে। অনেক ভালো ভালো লেংথের বলও ভালো খেলেছে। আমি যে জিনিসটা চেষ্টা করেছি রানটা বেঁধে রাখার জন্য।’

এক প্রান্তে রান আটকাতে পারলে অন্যপ্রান্তে উইকেট পড়ার সুযোগ থাকে। মিরাজ সেই লক্ষ্য নিয়েই বল করেন বিদেশের মাটিতে, ‘দিন শেষে আমরা বাইরে (বিদেশে) যদি রানটা আটকাতে পারি তবে উইকেট পড়ার সুযোগটা বেশি থাকে। আর হোমে তো অ্যাডভান্টেজ থাকেই। স্পিনটা বেশি করার সুযোগ থাকে। বাইরে খেলতে আসলে হয়তো প্রথম দিন, দ্বিতীয় দিন উইকেটের হেল্প খুব একটা থাকে না। তৃতীয় , চতুর্থ দিন থেকে হেল্প থাকে। তখন স্পিন করাটা শুরু হয়।’

ভারতের বিপক্ষে ইন্দোরে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে ইনিংস ও ১৩০ রানে হারে বাংলাদেশ। শুক্রবার ইডেনে শুরু হবে দুই দলের শেষ টেস্ট। ম্যাচটি হবে দিবারাত্রির।

Comments

comments