জামিনে বের হয়েই যুবককে হত্যা করলো আসামি

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে হামলা-ভাংচুর-লুটপাট মামলার আসামিরা জামিনে এসে বাদিনী হ্যাপি আক্তারের বাড়িঘরে আবারও হামলা চালায়।

এ হামলায় গুরুত্বর আহত হন মো. মুনতাজ আলীর পুত্র মো. স্বপন মিয়া (৪০), তার ভাই মো. মিলন মিয়া (৩৫) ও অপর ভাই মো. রিপন মিয়া (২৩)।

গুরুত্বর আহত হ্যাপির ভাসুর মো. স্বপন মিয়া (৪০) রোববার সন্ধ্যায় ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে মারা যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন নিহতের ছোট ভাই মো. সাইফুল ইসলাম।

অপরদিকে গুরুত্বর আহত মো. মিলন মিয়া (৩৫) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও মো. রিপন মিয়া (২৩) ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গৌরীপুর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিঞা জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এখন পর্যন্ত কেউ মামলা দেয়নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

জানা গেছে, গত ৩০ অক্টোবর অচিন্তপুর ইউনিয়নের মুখোরিয়া গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় বাড়িঘরে ভাঙচুর, লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হামলার শিকার ভুক্তভোগী মুখোরিয়া গ্রামের সাইফুল ইসলামের স্ত্রী হ্যাপি আক্তার বাদী হয়ে প্রতিবেশী প্রতিপক্ষ মো. সিদ্দিকুর রহমান, মো. সাফায়েতসহ ২৫ জনকে আসামি করে গৌরীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

হ্যাপি আক্তার বলেন, এ মামলায় জামিন পেয়ে আসামিরা শুক্রবার আবারও হামলা চালায়। সেই হামলায় আমার ভাসুর স্বপন মিয়া আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

Comments

comments