এবার যুবলীগের নেতা হতে চান ঢাবি শিক্ষক!

যুবলীগের সপ্তম জাতীয় কংগ্রেস সম্মেলন প্রস্তুতি খাদ্য উপ-কমিটিতে সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের প্রভাষক বেলাল আহমেদ ভূঞা অনিক। খাদ্য উপ-কমিটির তালিকায় ২৬৭ নম্বর সদস্য হিসেবে তার নাম রয়েছে।

এ বিষয়ে দর্শন বিভাগের প্রভাষক বেলাল আহমেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, উপ-কমিটিতে খাদ্য বিভাগে আমার নাম রয়েছে। নেত্রী (শেখ হাসিনা) চাইলে যুবলীগের অন্য পদে আসব৷ যুবলীগের কমিটিতে আসার ইচ্ছা আমারও আছে।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ( শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমেদ বলেন, কোনো দলের পদ গ্রহণের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন বাধা নিষেধ নেই। তবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক হিসেবে তার যুবলীগের যে কোনো পদের চেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকতার মর্যাদায় অনেক বেশি। আমি চাই উনি এ সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে আসবেন।

কিছুক্ষণ পর উপ-উপাচার্যের সঙ্গে কথা বলে মোবাইলফোনে বলেন, উপ-কমিটিতে আসা তেমন কোনো দোষের নয়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বেলাল আহমেদ ভূঞা অনিক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগ থেকে পড়াশোনা করেছেন। মেধাক্রম পিছনে থাকায় প্রথমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ পাননি। পরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শন বিভাগে প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ পান। ২০১৭ সালে তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক তাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ দেন। এ শিক্ষকের গ্রামের বাড়ি নরসিংদী জেলায়।

উল্লেখ্য, এর আগে যুবলীগের দায়িত্ব পেলে উপাচার্যশিপ ছেড়ে দিবেন বলে জানিয়ে ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। গত মাসে বেসরকারি টিভি চ্যানেল যমুনা টেলিভিশনের এক টক শোতে তিনি বলেছেন, আমি উপাচার্য হওয়ার পর আর কোনো (যুবলীগের) মিটিংয়ে যাই না। তবে যদি আমাকে এখনো বলা হয় যুবলীগের দায়িত্ব নিতে হবে, আমি ভাইস চ্যান্সেলরের পদ ছেড়েই দায়িত্ব নেব। ড. মীজানুর রহমান ২০১৩ সালের ২০ মার্চ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি হিসেবে যোগ দেন। এর আগে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ পদে ছিলেন।

Comments

comments