জাবিতে ভিসি অপসারণ দাবিতে আন্দোলন: শুক্রবারের সান্ধ্যকালীন কোর্সও বন্ধ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে নিয়মিত ক্লাস-পরীক্ষার বাইরে এবার শুক্রবারের সান্ধ্যকালীন মাস্টার্স কোর্সও বন্ধ করলেন আন্দোলনকারীরা।

শুক্রবার সকাল আটটায় ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সান্ধ্যকালীন কোর্স চালু থাকা সকল বিভাগ ও অনুষদে তালা দিয়ে সামনে অবস্থান করেন। এসময় আগত শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা ক্লাস করার অনুরোধ করলেও আন্দোলনকরীরা নিজেদের অবস্থান ত্যাগ করেননি। অবরোধের মুখে দিনের প্রথম দিকের ক্লাসগুলো নিতে না পেরে বাধ্য হয়ে শুক্রবারের সকল ক্লাস বাতিল করে বিভাগগুলো। ফলে আগত শিক্ষার্থীরা জুমার আগে ক্যাম্পাস ত্যাগ করতে দেখা যায়।

এ বিষয়ে বিজনেস অনুষদের ডিন নীলাঞ্জন কুমার সাহা বলেন, ‘আন্দোলনকারীদের আমরা ক্লাস করার সুযোগ দিতে বললে তারা আমাদের অনুরোধ রাখেনি। ফলে আমরা শুক্রবারের ক্লাস বাতিল করি। তবে শনিবারের ক্লাস যেন বন্ধ না করা হয় সেজন্য তাদের প্রতি অনুরোধ করা হয়েছে।’

শুক্রবারের অবরোধের বিষয়ে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জাবি শাখার যুগ্ম-আহ্বায়ক জয়নাল আবেদিন শিশির বলেন, ‘আমরা কয়েক মাস যাবৎ ভিসির দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসছি। গত এক সপ্তাহ টানা ভিসি অপসারণের দাবিতে প্রশাসনিক ও অ্যাকাডেমিক ভবন অবরোধ করায় স্থবির হয়ে পড়েছে জাবির শিক্ষাকার্যক্রম তবুও ভিসি তার অবস্থান থেকে সরছেন না। রাষ্ট্রপতির দফতর থেকেও কোনো জবাব আসছে না। তাই আমরা আন্দোলনের মাধ্যমেই এ দুর্নীতির অপসারণ দেখতে চাই। যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়েছে, তাই কোনোভাবে বাণিজ্যিক কার্যকক্রম (সান্ধ্যকালীন কোর্স) চলতে পারে না। সেজন্য আমরা শুক্রবার উইকেন্ড ক্লাস প্রতিহত করেছি এবং শনিবারও প্রতিহত করা হবে।’

অবরোধকালে অধ্যাপক শামিমা সুলতানা, অধ্যাপক নুরুল ইসলাম, অধ্যাপক ফজলুল করিম পাটওয়ারি, অধ্যাপক জামাল উদ্দিন, সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার হাসান মাহমুদসহ ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্রফ্রন্ট, জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট, ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ও বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments