কটিয়াদীতে ফের স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কোপালো প্রতিপক্ষরা, এক মাসে জখম ৬!

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে আবারও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আবু বাক্কার আকন্দকে (৩০) কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের চরঝাকালিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আবু বাক্কার কটিয়াদী পৌর এলাকার পূর্বপাড়া ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও একই মহল্লার আবদুল বারিক আকন্দ ওরফে ফালু মিয়ার পুত্র।

এ নিয়ে কটিয়াদীতে দেড় মাসে ছয়জন আওয়ামী লীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, ঝাকালিয়া গ্রামের শ্বশুরবাড়ি থেকে কটিয়াদী আসার পথে আলেয়া মেম্বারের বাড়ির নিকট দুর্বৃত্তরা ধারালো অস্ত্রদিয়ে আবু বাক্কারের ডান হাত ও ডান পায়ে কুপিয়ে জখম করে। তার চিৎকারে পথচারীরা এগিয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

আহত বাক্কারকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মো. জাকির হোসেন যুগান্তরকে জানান, বাক্কারের ডান হাত ও ডান পায়ে ধারালো অস্ত্রদিয়ে কোপের আঘাত রয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গত দেড় মাসে কটিয়াদীতে তিন স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও তিন আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখমের ঘটনা ঘটেছে। আহতরা হচ্ছেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র যুগ্ম-আহ্বায়ক নূরুল হক, যুগ্ম-আহ্বায়ক মাহমুদুল হাছান মামুন ও ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বাক্কার আকন্দ।

অপরদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফারুকুল ইসলাম ফারুক, দেলোয়ার হোসেন ও হাবিবুর রহমান জুয়েল দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত হয়েছেন।

Comments

comments