রণক্ষেত্র ভোলা, পুলিশের গুলিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫, আহত দুই শতাধিক

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় পুলিশের সাথে সাধারণ জনগণের ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পাঁচজন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন দুই শতাধিক।

আল্লাহ এবং রাসূলকে (সা:) নিয়ে এক হিন্দু ব্যক্তির ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে আজ রোববার আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ উপলক্ষে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

বোরহানউদ্দিন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ভোলা সদর হাসপাতাল সূত্রে এ ৫জনের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তারা হলেন- কিশোর গনি, মাহাবুব, শাহীন, মিজান (৪০) ও মাফুজ পাটোয়ারি (৪৫)।

Image may contain: one or more people

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের চন্দ্র মোহন বৈদ্দের ছেলে বিপ্লব চন্দ্র শুভর ফেসবুক আইডি থেকে তার বন্ধু তালিকার বেশ কয়েকজনের কাছে আল্লাহ এবং রাসূলকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালির ম্যাসেজ আসে। এই ম্যাসেজ আসাকে কেন্দ্র করে সাধারণ মুসুল্লিদের ব্যানারে আজ সকাল ১০টায় বিক্ষোভের ডাক দেয়া হয়।

সকাল থেকে বোরহানউদ্দিন উপজেলার গ্রামগঞ্জ থেকে মুসুল্লিরা শহর অভিমুখে আসতে থাকে। এতে ভোলার পুলিশ সুপার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ মোতায়েন করেন। পুলিশ সভা সংক্ষিপ্ত করার জন্য নির্দেশ দেয়ার পর পরেই সংঘর্ষের শুরু হয়।

এর আগে গত শনিবার বাদ আছরও বোরহানউদ্দিন এর ওলামায়ে কেরামদের নেতৃত্বে সর্বস্তরের মুসলিম তাওহীদি জনতা বিপ্লব চন্দ্র শুভ’র ফাঁসির দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করেন।

Comments

comments