সাবেক ছাত্রলীগ নেতার ছুরিকাঘাতে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ঈশ্বরগঞ্জে সহপাঠীদের ছুরিকাঘাতে গুরুত্বর আহত শিক্ষার্থী জাহিদুল ইসলাম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। সে দত্তপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে নিহতের মা নূরজাহান বাদী হয়ে ১১জনের নাম উল্লে­খ করে এবং অজ্ঞাত আরও ১০/১১ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। রাতেই পুলিশ ১নং আসামি ঈশ্বরগঞ্জ কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক আহব্বায়ক মশিউর রহমান কাঞ্চনকে গ্রেফতার করে।

জানা যায়, মঙ্গলবার প্রতিশ্রুতি মডেল স্কুলের ছাত্র জাহিদুল ইসলাম নিজ বাসা দত্তপাড়া থেকে রিক্সাযোগে এসএসসি নির্বাচনী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে স্কুলে যাওয়ার পথে সহপাঠীরা মুখে কালো কাপড় বেঁধে তাকে ছুরিকাঘাত করে। এতে সে গুরুতর আহত হয়। পরে পরিবারের লোকজন তাকে চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। রাতে তার অবস্থার অবনতি ঘটলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভোর রাতেই সে মারা যায়।

মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, জাহিদুলের সাথে আন্তঃস্কুল ফুটবল খেলা নিয়ে কিছুদিন আগে সহপাঠী মেহেদী ও মনিরের বিবাদ হয়। এর জেরেই এ ঘটনা ঘটে।

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিশ্রুতি মডেল স্কুলের প্রধান শিক্ষক শোয়েব মোহাম্মদ রুপু জানান, পরীক্ষার দুদিন আগে জাহিদুল আমাকে সহপাঠীদের সঙ্গে বিরোধের কথা জানিয়ে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণের অপারগতা জানিয়ে ছিল। কিন্তু নির্বাচনি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতেই হবে বলায় প্রথম দিনের ইংরেজি প্রথম পত্রের পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে ঝগড়া সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে কোন সমস্যা নেই বলে সে জানায়। পর দিন সাড়ে নয়টার দিকে ইংরেজি দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা দেয়ার জন্য রিক্সাযোগে স্কুলে আসার পথে সহপাঠীরা ধাওয়া করে শিমুলতলী নামক স্থানে জাহিদুলের গলায় ছুরিকাঘাত করে বলে শুনতে পাই।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহমেদ কবীর হোসেন জানান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএ নেওয়াজী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Comments

comments