শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে বুয়েট ভিসি!

আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম। উপচার্যকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক শেষে মঙ্গলবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে এলে তাকে ভিসি ভবনের নিচে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়।

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে এসে ভিসি বলেন, আমি তোমাদের অভিভাবক, তোমরা আমার সন্তান। আবরারের সাথে যে ঘটনাটি ঘটেছে সেটা অনাকাঙ্ক্ষিত। এ কথা শোনার পরে শিক্ষার্থীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। তারা বলেন, এটা একটা খুন, আপনাকে স্বীকার করতে হবে। এ সময় শিক্ষার্থীদের শান্ত হয়ে কথা শুনতে বলেন ভিসি সাইফুল ইসলাম।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শান্ত হলে ভিসি বলেন, আমি শিক্ষামন্ত্রী ও উপমন্ত্রীর সাথে কথা বলেছি। তারা দেশের বাইরে আছেন। সেখান থেকে তারা যেভাবে নির্দেশনা দিচ্ছেন আমি তা পালন করছি। আমি তোমাদের দাবিগুলো দেখেছি। এসব নিয়ে তোমাদের শিক্ষকদের সাথে কথা হয়েছে। আমি সব দাবি মেনে নিয়েছি।

এদিকে, বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১০ আসামিকে ৫ দিন করে রিমান্ডে দিয়েছে মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত। ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবির ইয়াসিন আহসান চৌধুরী এ আদেশ দেন। দুপুরে তাদের আদালত প্রাঙ্গণে হাজির করে গোয়েন্দা পুলিশ। আসামিদের প্রত্যেকের ১০ দিন করে রিমান্ড চাইলে আদালত পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তবে দশ আসামির মধ্যে ছয়জনের পক্ষে কোনো আইনজীবী নিয়োগ করা হয়নি। আসামিরা হলেন বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল সহসভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদ সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার ক্রীড়া সম্পাদক মেফ-তাহুল ইসলাম জিয়নসহ ১০ জন।

এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় আবরারের বাবা অবসরপ্রাপ্ত ব্র্যাককর্মী বরকতুল্লাহ রাজধানীর চকবাজার থানায় ১৯ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

Comments

comments