‘অমানবিক কারফিউ তুলে নিলে কাশ্মীরে রক্তগঙ্গা বইবে’

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরে যে অমানবিক কারফিউ জারি করে রাখা হয়েছে তা তুলে নেয়া সেখানে রক্তগঙ্গা বয়ে যেতে পারে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। শুক্রবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম বার্ষিক অধিবেশনে ভাষণ দেয়ার সময় এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

এ ছাড়াও জম্মু-কাশ্মীরে কারফিউ জারির মাধ্যমে ভারত যে অচলাবস্থা তৈরি করে রেখেছে এ সময় তার নিন্দাও করেন ইমরান খান।

এ সময় ইমরান খান প্রশ্ন তুলে বলেন, ৮০ লাখ জনসংখ্যার অঞ্চলে নয় লাখ ভারতীয় সেনা মোতায়েনের কী প্রয়োজন থাকতে পারে? নারী শিশু এবং অসুস্থ লোকজনকে পশুর মত খাঁচা-বন্দী করে রাখা হয়েছে সেখানে।

আশঙ্কা প্রকাশ করে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাশ্মীর থেকে কারফিউ তুলে নেয়ার পর সেখানে রক্তগঙ্গা বয়ে যেতে পারে। ভারতের এই অমানবিক কারফিউয়ের কারণে কাশ্মীরের জনগণ অস্ত্র হাতে তুলে নিতে পারে।

ভাষণে কাশ্মীর উপত্যকা থেকে ভারতীয় বাহিনীর অমানবিক কারফিউ প্রত্যাহার এবং বন্দীদের মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানান ইমরান খান।

‘জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে কাশ্মীরের জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণ অধিকারের ব্যাপারে প্রস্তাব পাস হয়েছিল’ -এ কথা মনে করিয়ে দিয়ে ইমরান বলেন, সে প্রস্তাব জাতিসংঘকেই বাস্তবায়ন করতে হবে। নইলে দুই পরাশক্তি ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সর্বাত্মক যুদ্ধ হলে তার পরিণতি সারাবিশ্বকে ভোগ করতে হবে।

Comments

comments