চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রলীগ সভাপতিকে রড দিয়ে হাত ভেঙ্গে দিলো প্রতিপক্ষরা

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিঠুকে রড দিয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে তার প্রতিপক্ষরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার সময় জীবননগর পৌর শহরের মহানগর সিনেমা হলের পাশে এ ঘটনা ঘটে।

আহত জীবননগর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিঠু পৌরসভার ৭ নম্বর ওর্য়াডের কামাল হোসেনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার সময় মিঠু নারায়নপুর মোড়ের দিক থেকে আসছিলেন। এমন সময় ইমান আলীর ছেলে সাহেব, আজিজুলের ছেলে সেলিম গাফফারের চায়ের দোকান থেকে বের হয়ে মিঠুর গাড়ি থামিয়ে রড দিয়ে তাকে মারধর করতে থাকে।

এ সময় মিঠু রাস্তায় পড়ে গেলে তার মোটরসাইকেলটি ভাংচুর করে। পরে স্থানীয়রা আহত মিঠুকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

আহত মিঠু বলেন, সাহেবের সঙ্গে গত ৫ মাস আগে কলেজে একটি দ্বন্দ্ব হয়েছিল। সেটির সূত্র ধরেই তারা আমাকে রড দিয়ে পিটিয়ে আমার হাত ভেঙ্গে দেয় এবং আমার মোটরসাইকেলটি ভাংচুর করে।

জীবননগর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি সোয়েব আহম্মেদ অঞ্জন বলেন, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিঠুকে মেরেছে আমি শুনেছি। তবে কি কারণে মেরেছে এটা আমি জানি না।

জীবননগর থানার ওসি তদন্ত ফৈরদৌস ওয়াহিদ জানান, জীবননগর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিঠুকে পিটিয়ে আহত করেছে এটা আমি শুনেছি। তবে এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments

comments