সুবর্ণচরের সেই নারীর স্বামীকে এসিড নিক্ষেপ করলো ধর্ষকেরা!

ধানের শীষে ভোট দেয়ায় ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন নোয়াখালীর সুবর্ণচরের এক গৃহবধূ। আলোচিত ওই ঘটনার বিচার চাওয়ায় এবার এসিডে ঝলসে দেয়া হয়েছে সেই নারীর স্বামী নাসিরকে। গতকাল জেলা শহর মাইজদীতে মানববন্ধন করায় নাসিরের ওপর এসিড নিক্ষেপ করা হয়। এতে তার পুরো শরীর ঝলসে গেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দীর্ঘ ৯ ঘণ্টা কেটে গেলেও জ্ঞান ফেরেনি তার।

এসিডদগ্ধ নাসিরের মা আরজান বেগম জানান, স্ত্রীর ধর্ষণের বিচার দাবিতে রোববার নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেন নাসির। মানববন্ধন শেষে মাকে নিয়ে চরবাগ্গা গেলে ধর্ষণ মামলার আসামি জয়নাল, রাসেল, জাকের, ফারুখ, মন্নানসহ কয়েকজন তাদের দেখে নেবে বলে হুমকি দেয়।

এরপর রাত ৩টায় ধর্ষিতার স্বামী নাসির (৪২) প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে তাকে এসিড নিক্ষেপ করে। এ সময় নাসিরের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন। রাত সাড়ে ৪টায় তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের ভর্তি করা হয়।

ভর্তির ৯ ঘন্টা পর আজ সোমবার দুপুর ১টা পর্যন্ত এসিড দগ্ধ নাসিরের জ্ঞান ফেরেনি। জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মহিউদ্দিন ও ওয়ার্ডের রেজিস্ট্রার ডা. সাইফুল ইসলাম জানান, এসিডে নাসিরের শরীরের প্রায় ৪০ শতাংশ পুড়ে গেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা নেয়া প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে চরজব্বর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইব্রাহিম খলিল বলেন, তিনি ঘটনা শুনেই হাসপাতালে গিয়েছেন। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, ৩০শে ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষে ভোট দেয়ায় তিন সন্তানের জননী নাসিরের স্ত্রীকে গণধর্ষণ করা হয়। পরদিন এ ব্যাপারে চরজব্বর থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা গ্রহণ করেনি। পরে নোয়াখালী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে মামলা করলে আদালত পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ দেন। মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।

Comments

comments