ডেঙ্গুতে রাজধানীতে আরো ৩ মৃত্যু

বুধবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত রাজধানীতে ডেঙ্গু রোগে আরো তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের দুজন নারী।

মশাবাহিত এ রোগে বুধবার দুপুর ৩টার দিকে প্রাণ হারান ঢাকার সরকারি তিতুমীর কলেজের এক ছাত্র।

ইউনাইটেড হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে মেহেদী হাসান নামে অর্থনীতির স্নাতকোত্তরের এই শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ডেঙ্গু নিয়ে সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ভর্তি হন মেহেদী। তার অবস্থা সংকটাপন্ন ছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা ৩টা ৩৮ মিনিটে তিনি মারা যান।

কুমিল্লার মুরাদনগরের ছেলে মেহেদী ঢাকায় থাকতেন কলেজের পাশের শহীদ আক্কাসুর রহমান আঁখি ছাত্রাবাসের ২০১ নম্বর কক্ষে।

তার বন্ধু তিতুমীর কলেজের আরেক ছাত্র ওয়াহিদ জানান, প্রচণ্ড জ্বর হলে সপ্তাহখানেক আগে মেহেদীকে বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিকে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত্র হয়ে ঢাকা মেডিকেলে আরো দুই নারীর মৃত্যু হয়। তারা হলেন, আসিয়া আক্তার (৩৬) ও আমেনা বেগম (৬০)।

ঢামেক হাসপাতাল সহকারী পরিচালক ডা. নাসির উদ্দিন তাদের মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত করেন। এ নিয়ে এই হাসপাতালে ২০ জনের মৃত্যু হলো। যার মধ্যে বুধবার তিনজন মারা যান।

ডা. নাসির উদ্দিন জানান, আইসিইউ’তে বুধবার বিকেল ৫টায় মারা যান আসিয়া আক্তার। ৪ তারিখ থেকে তিনি আইসিইউ’তে ভর্তি ছিলেন।

আসিয়ার বড়বোন কুলসুম আক্তার জানান, তাদের বাড়ি কুমিল্লা লাকশাম উপজেলার গজারিয়া গ্রামে। আসিয়ার স্বামীর নাম শহিদুল্লাহ। ১০ দিন ধরে জ্বরাক্রান্ত ছিলো সে। ছয়দিন তিনি হাসপাতলে ভর্তি ছিলেন।

অপরদিকে শরিয়তপুর ডামুড্ডা থেকে ভর্তি করা হয় আমেনাকে। চিকিৎসাধীন বুধবার দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

তার ভাতিজা ফারুক আলম জানান, আমেনার স্বামীর নাম আ. করিম বেপারী। শুক্রবার থেকে তার জ্বর ছিলো। শনিবার ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসাধীন ৫০২ নম্বর ওয়ার্ডে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে বুধবার ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে ঢামেক হাসপাতালে আওলাদ হোসেন (৩২) নামে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত এক যুবকের মৃত্যু হয়।

Comments

comments