৩০ লাখ টাকা চাঁদার দাবিতে সাতক্ষীরার ১১ শিক্ষককে হুমকি

সর্বহারা পার্টি এমএল গ্রুপের আঞ্চলিক প্রধান পরিচয়ে সাতক্ষীরা সরকারি কলেজের ১১ শিক্ষকের কাছে মুঠোফোনে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এই বিষয়ে ওই শিক্ষকদের একজন সোমবার সন্ধ্যায় থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন।

ঘটনার শিকার ওই শিক্ষকদের সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বেলা ১১ থেকে ১২ টার মধ্যে মোট ১১ শিক্ষকের কাছে দুটি বাংলালিংক নম্বর থেকে ফোন আসে। ওই ফোন কলে নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে শিক্ষকদের কাছ থেকে চাঁদা দাবি কর হয়।

এ ঘটনায় সাতক্ষীরা থানায় জিডি করেছেন বলাই চন্দ্র ঘোষ। তিনি সরকারি কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ। বলাই চন্দ্র ঘোষ বলেন, বাংলালিংকের দুইটি নম্বর থেকে তিনিসহ কলেজের ১১ শিক্ষককে হুমকি দিয়ে চাঁদা চাওয়া হয়েছে। চাঁদা দাবিকারী নিজেকে সর্বহারা দলের প্রধান হিসেবে নিজের পরিচয় দিয়েছেন। ফোনে ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, তাঁদের অনেক নেতা-কর্মী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গুলিতে আহত। তাঁদের চিকিৎসায় কমপক্ষে ৩০ লাখ টাকা দরকার। শিক্ষকেরা যদি টাকা না দেন, তাহলে ফল হবে ভয়াবহ।

বলাই চন্দ্র ঘোষ আরও বলেন, এ ঘটনার পর শিক্ষকদের নিয়ে একটি জরুরি বৈঠক হয়েছে। বৈঠক থেকে এক সহকর্মী ওই দুই নম্বরের একটিতে ফোন করলে অপর প্রান্ত থেকে আবারও হুমকি দেওয়া হয়। এ সময় বলা হয়, ‘টাকা দিবি না, দেখিয়ে দিচ্ছি।’ তিনি বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে শিক্ষকেরা সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারকে জানিয়েছেন। সুপারের পরামর্শে জিডি তাঁরা করেছেন।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, হুমকিদাতাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় নেওয়ার চেষ্টা চলছে।

Comments

comments