মুসলিম নির্যাতনের বিরুদ্ধে কথা বলায় ৪৯ ভারতীয়র বিরুদ্ধে মামলা ও হত্যার হুমকি

ভারতজুড়ে ‘গো রক্ষার’ নামে মুসলিমদের নির্যাতন বন্ধের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বরাবর চিঠি দেয়ায় আদুর গোপালকৃষ্ণণ, মণি রত্নম, অপর্ণা সেন, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় ও শ্যাম বেনেগালের মত বিখ্যাত লোকদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগে মামলা করাছে হিন্দুত্ববাদীরা।

বিহার আদালতে মামলাটি করেছেন সুধীর কুমার ওঝা নামের এক হিন্দুত্ববাদী আইনজীবী।

ভারতজুড়ে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা ও গণপিটুনি বন্ধের দাবিতে এবং ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি তুলে সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বার্তা ছড়ানোর প্রতিবাদে দেশের ৪৯ জন বরেণ্য ব্যক্তিত্ব প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বরাবর চিঠি দেন। এরপর তা নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়।

এদের পাশাপাশি দেশের ৪৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগ আনা হয়। এই তালিকায় আরও রয়েছে কৌশিক সেন, অনুরাগ কাশ্যপ, বিনায়ক সেন, কঙ্কনা সেনশর্মা, রেবতী, শুভা মুদগল, রূপম ইসলাম, অনুপম রায়, অঞ্জন দত্ত, গৌতম ঘোষ, পরমব্রত ও ঋদ্ধি সেনের মতো বিশিষ্টজনের।

সুধীর কুমার ওঝার অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উন্নয়নে ব্যাঘাত ঘটানো এবং বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করেছেন এই ৪৯ জন নাগরিক। তিনি এই মামলায় সাক্ষী হিসেবে কঙ্গনা রনৌত, মধুর ভান্ডারকর, বিবেক অগ্নিহোত্রীর নাম উল্লেখ করেছেন। আদালত আগামী ৩ আগস্ট মামলার শুনানির দিন ধার্য করেছেন।

অন্যদিকে অভিনেতা ও নির্মাতা কৌশিক সেন আর অনুরাগ কাশ্যপকে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে অভিনেত অপর্ণা সেন বলেছেন, মাত্র ৪৯ জন চিঠি দেয়াতেই এত ভয়। দুটো প্রাণনাশের হুমকি চলে আসছে।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি পাঠিয়ে বিজেপি আর দলটির বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের রোষানলে পড়েছেন দেশের ৪৯ জন বরেণ্য ব্যক্তিত্ব। এর পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সমর্থন করে দেশের ৬১ জন বিতর্কিত ব্যক্তি তাকে পাল্টা চিঠি দিয়েছেন।

Comments

comments