সাত দিন সমুদ্রে ভেসে থাকা ভারতীয় জেলেকে উদ্ধার করলো বাংলাদেশি জাহাজ

গভীর সমুদ্র থেকে ভারতীয় জেলেকে উদ্ধার করেছে বাংলাদেশের পতাকাবাহী জাহাজ এমভি জাওয়াদ।

গত বুধবার বেলা ১১টার দিকে কুতুবদিয়া থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে, তিনি এখন সুস্থ্য রয়েছেন বলে জানিয়েছেন জাহাজে থাকা কর্মকর্তারা।

কেএসআরএম গ্রুপের সহযোগী প্রতিষ্ঠান এসআর শিপিং লিমিটেডের জাহাজটি চলার পথে হঠাৎই ভেসে থাকা ওই ব্যক্তি জাহাজের ক্যাপ্টেনের নজরে আসেন। এরপর জাহাজ কাছে ভিড়িয়ে লাইফ জ্যাকেট ও বয়া ফেলে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এমভি জাওয়াদের কর্মকর্তা শাহজাদা আলম বলেন, প্রথমবার পোর্ট সাইডে তাকে দেখার পর জাহাজ থেকে লাইফ জ্যাকেট এবং বয়া ফেলা হয়। কিন্তু প্রবল স্রোতে তিনি বয়া ধরতে পারেননি। শুধু লাইফ জ্যাকেটটা ধরতে পেরেছিলেন। স্রোতের ধাক্কায় তিনি অনেক দূরে চলে যান। এরপর আবার পেছনের দিকে জাহাজ ঘুরিয়ে তিন নটিক্যাল মাইল দূরে তাকে পাওয়া যায়। পরে বয়া ফেলে তাকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধারের পর তাকে মোটা জামা কাপর দিয়ে উষ্ণ করা হয়। পরে তিনি জানান, তার রবীন্দ্রনাথ। তিনি ভারতের দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসিন্দা।

তার ভাষ্যমতে, তারা প্রায় ১৫ জন জেলে কুতুব দিয়া থেকে প্রায় ৬০০ কিলোমিটার দূরে ভারতের হলদিয়ার অদূরে বাংলাদেশ ভারত সীমান্তে ফিশিং করছিলেন। হঠাৎ ঝড়ের কবলে পড়লে তাদের ফিশিং বোট উলটে যায়। বোটের ১৫ জনের মধ্যে ১০ জন পানিতে ছিটকে পরে। বোটের ভেতরে থাকা পাঁচজনের ব্যাপারে তিনি এখনো কিছু জানেন না।

ছিটকে পড়াদের মধ্যে তারা তিনজন সব শেষ বুধবার সকাল অবধি একসঙ্গে ছিলেন। তবে উদ্ধারের কিছু আগে সে দুজন তলিয়ে গেছেন বলেও জানান তিনি। তারা বৃষ্টির পানি খেয়ে কোন রকম জীবন ধারণ করেন।

কেএসআরএম গ্রুপের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার জাহান জানান, বৈরী আবহাওয়ায় ডুবে যাওয়া ট্রলারের জেলেকে বাঁচানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে আমাদের জাহাজের লোকজন। পাশাপাশি কোস্টগার্ডসহ সংশ্লিষ্ট সব কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করে হস্তান্তরসহ পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

Comments

comments