গোপালগঞ্জে দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায় আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার ভোরে বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের সামনে এ সংঘর্ষ হয়।

আহতদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর। তারা হলেন- শিপুল মুন্সি (২৬), তরিকুল মোল্লা (৩৫), মো. নিশান শেখ (৪০), শাওন শেখ (৩০) ও পলাশ মুন্সি (৪৫)।

তাদের গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহতরা মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এলাকাবাসী জানান, ওই এলাকায় আদম বংশের নেতা ও বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার দেলোয়ার হোসেন এবং দক্ষিণপাড়ার পলাশ মুন্সির মধ্যে উপজেলা নির্বচনে প্রার্থীকে সমর্থন দেয়া কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছিল।

ঈদের পর দিন এলাকায় বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতাসহ অন্যান্য ভাতা প্রদান নিয়ে আওয়ামী লীগ মেম্বার দেলোয়ার হোসেনের কিছু অনিয়মের প্রতিবাদ করেন পলাশ মুন্সি। এতে দেলোয়ার মেম্বার তার ওপর ক্ষুব্ধ হন।

এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার ভোরে ইউনিয়ন পরিষদের সামনে দুপক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হন। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মুকসুদপুর থানার ওসি মোস্তফা কামাল পাশা জানান, এলাকার পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। কেউ বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করলে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

Comments

comments