যুবলীগ নেতা গ্রেফতারে এবার মিষ্টি বিতরণ চুয়াডাঙ্গায়!

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় যুবলীগ নেতা শিলনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবু তাহেরের দায়ের করা চাঁদাবাজি মামলায় সোমবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

শিলনের বিরুদ্ধে হত্যা, চাঁদাবাজি, নারী নির্যাতনসহ অসংখ্য মামলা রয়েছে। তাকে গ্রেফতারের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মিষ্টি বিতরণের ঘটনাও ঘটেছে বলে এলাকার কেউ কেউ জানান।

পুলিশ ও এলাকাসূত্রে জানা গেছে, আলমডাঙ্গার জেহালা ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক মখলেছুর রহমান শিলন গড়চাপড়া গ্রামের মৃত ইসলাম মণ্ডলের ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় চাঁদাবাজি করে সাধারণ মানুষকে অতিষ্ঠ করে তুলেছিল।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার জেহালা বাজারের মদনবাবুর মোড় এলাকা থেকে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ শিলনকে গ্রেফতার করে।

ইউনিয়নের ২ নং মাদারহুদা ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু তাহের অভিযোগ করেন, ‘শিলন বেশ কিছুদিন ধরে আমার কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। এরই মধ্যে তাকে ২০ হাজার টাকা দিই। কিন্তু আরও একলাখ ৮০ হাজার টাকা না দিলে আমাকে হত্যার হুমকি দেয়। বাধ্য হয়ে আমি তার বিরুদ্ধে কয়েকদিন আগে থানায় লিখিত অভিযোগ করি।’

জেহালা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক হাসানউজ্জামান হান্নান জানান, ‘শিলন গ্রেফতার হওয়ায় এলাকায় মিষ্টি বিতরণের ঘটনাও ঘটছে। তার বিরুদ্ধে গণঅভিযোগে স্বাক্ষর চলছে।’

আলমডাঙ্গা থানার ওসি মুন্সি আসাদুজ্জামান বলেন, ‘আবু তাহেরের অভিযোগটি সোমবার এজাহার হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। শিলন এলাকার চিহ্নিত অপরাধী। তার বিরুদ্ধে আলমডাঙ্গা থানায় হত্যা, চাঁদাবাজি, নারী নির্যাতনসহ আরও ৮টি মামলা রয়েছে। কয়েকটি মামলা আদালতে বিচারাধীন আছে।’

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২৯ শে মে গাজীপুরে যুবলীগ নেতা জুয়েল মণ্ডল অস্ত্রসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হওয়ায় এলাকার সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে আসে। বিভিন্ন স্থানে স্থানীয়রা মিষ্টি বিতরণ করে।

আরও পড়ুন: গাজীপুরে যুবলীগ নেতা গ্রেফতার, এলাকায় মিষ্টি বিতরণ

Comments

comments