ঠিক হচ্ছে না অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কেনার ভোগান্তি

শিগগিরই দূর হচ্ছে না অ্যাপ ব্যবহার করে রেলের টিকিট কেনার সমস্যা। সক্ষমতা না থাকায়, বিপুল সংখ্যাক যাত্রীর চাপ সামাল দিতে পারছে না সার্ভার। তাই বাধ্য হয়ে কাউন্টার থেকেই টিকিট কিনতে হচ্ছে। সেখানেও দীর্ঘ লাইনে থাকার দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

অ্যাপের দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠান সিএনএস বিডি’র তথ্য বলছে, মঙ্গলবার ৩০ শে মে’র ৮ হাজার ৮৫৯টি এবং বুধবার ৩১ শে মে’র ৮২৬৮টি অগ্রিম টিকিট বিক্রি অনলাইনে বিক্রি হয়েছে। তারা বলছে, অনলাইনে বরাদ্দ ১১ হাজার টিকিট কিনতে চেষ্টা করেছেন ২ লাখ যাত্রী। পেরেছেন মাত্র ৫ শতাংশ।

এ ব্যাপারে সিএন‌এসবিডির প্রকল্প ব্যবস্থাপক কবিরুল আলম বলেন, প্রতিদিন ১১ হাজার টিকেট থাকে অনলাইনে বিক্রির জন্য। টিকেট বিক্রির প্রথম দিন মোট টিকেটের ৭১ শতাংশ বিক্রি হয়েছে।

এতো অভিযোগের এতগুলো টিকেট কীভাবে বিক্রি হলো জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমরা শুধু স্টেশন দেখভাল করি। বিক্রির তথ্য দিয়েছে সিএন‌এসের মূল কার্যালয়ের টেকনিক্যাল বিভাগ। তারা এর ভালো ব্যাখ্যা দিতে পারবে।”

ডিজিটাল মাধ্যমে দুর্গতির কথা আগেই জেনেছেন অনেকে। অথচ টিকিট পেতেই হবে। তাই ভরসা কাউন্টার। বাড়ি ফেরা নিশ্চিত করতে কেউ লাইনে দাঁড়িয়েছেন মধ্যরাতে, কেউবা সেহরি খেয়েই। যদিও টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে সকাল নয়টায়। দীর্ঘ লাইনের ভোগান্তি স্বীকার করেছেন স্টেশন ম্যানেজার। বলেছেন ধৈর্য্য ধরা ছাড়া উপায় নেই।

শুক্রবার দেয়া হবে ২রা জুনের টিকিট। ৩রা ও ৪ঠা জুনের টিকিট পাওয়া যাবে শনি ও রবিবার।

Comments

comments