রাজধানী থেকে আবারও অপহরণ

রাজধানীর তেজগাঁও থেকে আইটি বিশেষজ্ঞ আতাউর রহমান শাহীনকে অপহরণ করা হয়েছে। তিনি বেঙ্গল গ্লাসের সহকারী ব্যবস্থাপক ও আকিজ গ্রুপে আইটি সেকশনে খণ্ডকালীন চাকরি করতেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকার আকিজ হাউজের সামনে থেকে একটি মাইক্রোবাসে করে তাকে তুলে নেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় গতকাল শাহীনের পরিবারের সদস্যরা তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থল

পরিদর্শন করে সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী হোসেন বলেন, আমরা অপহৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ পেয়েছি সেটি জিডি হিসাবে গ্রহণ করা হয়েছে। পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেছে। ফুটেজে কয়েকজন লোক শাহীনকে মাইক্রোবাসে করে তুলে নেয়ার দৃশ্য দেখা গেছে। তবে কারা তাকে তুলে নিয়ে গেছে তাদের চেহারা স্পষ্ট না। এছাড়া গাড়ীর নম্বরও দেখা যাচ্ছে না। আমরা চেষ্টা করছি ঘটনাটি ভালো ভাবে জানার। তদন্ত করে বিষয়টি জানানো হবে।

শাহীনের ভায়রা মঞ্জুর হোসেন বলেন, শাহীন বেঙ্গল গ্লাস কোম্পানিতে কাজ করলেও অফিসের বাইরে গিয়েও পার্টটাইম কাজ করতেন। অপহরণের দিনও তিনি তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকার আকিজ হাউজে কাজ করতে গিয়েছিলেন। সেখানে কাজ শেষ করে শাহীন ও তার এক সহকর্মী মান্নান সন্ধ্যা ৭টা ২২ মিনিটে একসঙ্গে বের হন। তারপর আকিজের সামনে দাঁড়িয়ে বাসায় ফেরার জন্য তারা অ্যাপস ভিত্তিক মোটরসাইকেল সার্ভিসে আলাদা আলাদা রিকোয়েস্ট পাঠান। সহকর্মী ফারুকের রাইডারের অবস্থান কাছাকাছি থাকায় তিনি দ্রুত চলে যান। কিন্তু শাহীনের রাইডার আসতে দেরি করছিল। এ সুযোগে শাহীন মোবাইল ফোন হাতে নিয়ে দেখছিলেন। তখন ফুটপাতের মধ্যে একটি মাইক্রোবাস দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। তার কয়েক সেকেন্ড পরে শাহীনের পেছনে এসে তিনজন লোক দাঁড়ায় আর মাইক্রোবাসটি আস্তে আস্তে সামনে চলে আসে। মঞ্জুর বলেন, তখনও শাহীন মোবাইল ফোনে ব্যস্ত ছিলেন। পরে মাইক্রোবাসের ভেতর থেকে একজন লোক গেট খুলে আর শাহীনের পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা তিনজন তাকে ধাক্কা দিয়ে মাইক্রোবাসে তুলে নেয়।

শাহীনের স্ত্রীর বরাত দিয়ে মঞ্জুর আরও জানিয়েছেন, অফিস থেকে বের হয়ে শাহীন তার স্ত্রী নিলুফার সঙ্গে কথা বলে জানিয়েছিলেন তিনি অফিস থেকে বের হয়ে বাসায় যাচ্ছেন। কিন্তু রাত ১০ টা পর্যন্ত অপেক্ষা করেও যখন শাহীন বাসায় পৌঁছাননি তখন তার মোবাইলে ফোন দিলে বন্ধ পাওয়া যায়। স্বজনরা জানিয়েছেন, শাহীনের বাড়ি গাইবান্ধায়। পরিবারের সঙ্গে তিনি মিরপুর-২ সনি সিনেমা এলাকায় থাকতেন। শাহীন ভারতের ব্যাঙ্গালুরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইটিতে পড়াশুনা করে বেঙ্গল গ্রুপে চাকরির পাশাপাশি আকিজ গ্রুপে খন্ডকালীন চাকরি করতেন। তার নামে কোন মামলা নেই এবং তিনি কোন রাজনৈতিক দলের সঙ্গেও তিনি সম্পৃক্ত নন।

এদিকে আকিজ গ্রুপ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে শাহীন আকিজের আইটি সেকশনে খন্ডকালীন সময়ে চাকরি করতেন। সেই সুবাদেই তিনি বৃহস্পতিবার তাদের তেজগাঁও অফিসে গিয়েছিলেন।

Comments

comments