‘জঙ্গি আস্তানায়’ র‌্যাবের কমান্ডো অভিযান, গোলাগুলি ও বিস্ফোরণ

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বছিলায় ঘিরে রাখা সন্দেহজনক ‘জঙ্গি আস্তানায়’ বিস্ফোরণে কমপক্ষে দুজন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। বাড়িটিতে অবিস্ফোরিত আরও কিছু হাতে তৈরি বোমা আইইডি (ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস) থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সকাল ১০টার দিকে বাড়িটির ভেতর র‌্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল ও ডগ স্কোয়াড প্রবেশ করেছে। টিনশেডের বাড়িটি থেকে বিস্ফোরণের হালকা ধোঁয়া বেরোচ্ছে এখনো।

গতকাল রোববার দিবাগত রাত সাড়ে তিনটা থেকে বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়। বাড়িটির ভেতর থেকে গুলি ও দুটি বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছে র‌্যাব। বাড়িটির আশপাশের লোকজনকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।
আজ সোমবার সকালে র‌্যাবের পরিচালক (গণমাধ্যম) মুফতি মাহমুদ খান সাংবাদিকদের বলেন, বাড়িটির ভেতর দুই-তিনজন ‘জঙ্গি’ মারা গেছেন বলে ধারণা করা যাচ্ছে। বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়ার পর পর বাড়িটি ড্রোনের মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করছে র্যাব। বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দল জায়গাটিতে তল্লাশি চালাচ্ছে। আরও কিছু অবিস্ফোরিত আইইডি থাকার আশঙ্কা রয়েছে।

তবে র‌্যাব-২ এর একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, বাড়ির ভেতর দুজন ‘জঙ্গির’ ছিন্নভিন্ন মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা গেছে।

বছিলার মেট্রো হাউজিং এলাকায় বাড়িটি অবস্থিত। মেট্রো হাউজিংয়ের দক্ষিণ-পূর্ব কোনার শেষ প্রান্তে এর অবস্থান। এটি একটি এক তলা টিনশেডের ভবন। চারটি কক্ষ রয়েছে। জঙ্গি অবস্থানের তথ্য জানার পরিপ্রেক্ষিতেই বাড়িটি ঘিরে অভিযান শুরু করে র‌্যাব-২।

রায়েরবাজার বধ্যভূমির ঠিক পেছনে র‌্যাব-২ এর নতুন সদর দপ্তর থেকে মাত্র আধা কিলোমিটার দূরে বাড়িটি অবস্থিত। বাড়িটির ঠিক পাশে একটি দোতলা ভবন রয়েছে। বেশির ভাগ প্লট ফাঁকা। কিছু বাড়ি নির্মাণাধীন।

Comments

comments