সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৭

দেশের বিভিন্ন স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে জয়পুরহাটে ট্রাক্টরের ধাক্কায় নার্সিং ইন্সটিটিউটের ছাত্র, লক্ষ্মীপুরে ট্রলি উল্টে কিশোর শ্রমিক, চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় গাড়িচাপায় নিরাপত্তাকর্মী, সিলেটের ওসমানীনগরে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় রিকশাচালক, শেরপুরে বাস খাদে পড়ে বৃদ্ধ, কিশোরগঞ্জের ভৈরবে অটোবাইকের চাপায় শিশু ও মাগুরায় বালুর ট্রাক উল্টে শ্রমিক নিহত হয়েছে।

এছাড়া পাবনার চাটমোহরে বালুভর্তি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্কুলে ঢুকে পড়ে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

জয়পুরহাট : সদর উপজেলার আউশগাড়া এলাকায় একটি বালু বোঝাই ট্রাক্টরের ধাক্কায় নিহত নার্সিং ইন্সটিটিউটের ছাত্রের নাম সাব্বির হোসেন (২৩)। তিনি জয়পুরহাট সদর উপজেলার আউশগাড়া গ্রামের সাইদুল ইসলাম ছেলে। শনিবার বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে মোহাম্মদাবাদ ইউনিয়ন পরিষদে জন্মনিবন্ধন করতে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় পড়েন তিনি।

লক্ষ্মীপুর : লক্ষ্মীপুরে মালবাহী ট্রলি উল্টে নিহত কিশোর শ্রমিকের নাম মো. বাবু (১৬)। শনিবার সকালে সদর উপজেলার মিরিকপুর এলাকায় দুর্ঘটনাটি ঘটে। বাবু সদর উপজেলার রাধাপুর গ্রামের নুরুল আমিনের ছেলে।

চট্টগ্রাম : নগরীর পতেঙ্গা থানাধীন কাটগড় চরপাড়া এলাকায় শুক্রবার মধ্যরাতে বাসচাপায় নিহত সুমন মিয়া (২৭) একে খান কোম্পানির নিরাপত্তকর্মী। তিনি নগরীর লালখান বাজার একে খান স্টাফ কোয়ার্টারে পরিবার নিয়ে থাকতেন, বাড়ি ঢাকার বিক্রমপুরে।

ওসমানীনগর (সিলেট) : ওসমানীনগরে মোটরসাইকেল ও ইঞ্জিনচালিত রিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত শাহবাজ মিয়া (১৮) ওই রিকশার চালক। গোয়ালাবাজার আদর্শ সরকারি মহিলা কলেজের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। তিনি বিশ্বনাথ উপজেলার খারজান গ্রামের নাহার মিয়ার ছেলে।

শেরপুর : সদর উপজেলার গিনাপাড়া গ্রামে শনিবার যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে নিহত বৃদ্ধের পরিচয় পাওয়া যায়নি। নাদিরা এন্টারপ্রাইজ নামে লোকাল বাসটি জামালপুর থেকে শেরপুর আসার পথে খাদে পড়ে যায়। এতে আহত হন আরও কমপক্ষে ১২ জন।

ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) : ভৈরবের পলতাকান্দা এলাকায় শনিবার অটোবাইকের চাপায় নিহত শিশুর নাম সোহানা বেগম (৫)। সে ভৈরব শহরের পলতাকান্দা এলাকার আবু সাঈদের মেয়ে। বাড়ি থেকে বেরিয়ে রাস্তায় এলে ব্যাটারিচালিত অটোবাইক শিশুটিকে চাপা দেয়।

মাগুরা : মাগুরায় বালুর ট্রাক উল্টে শনিবার নিহত হয় স্বাধীন। সে ওই ট্রাকের শ্রমিক ও সদর উপজেলার ভিটাসাইর গ্রামের আবদুস সবুরের ছেলে। কালিশংকরপুর গ্রামে বালু নামিয়ে ফিরে আসার সময় চালক থাকা সত্ত্বেও স্বাধীন খালি ট্রাকটি নিজে চালিয়ে আসছিল। পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাকটি উল্টে যায়।

চাটমোহর (পাবনা) : চাটমোহরে শনিবার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি বালুভর্তি ট্রাক পৌর শহরের শালিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঢুকে পড়ে। এতে স্কুলের গেট, শ্রেণীকক্ষ ও দোকানঘর ধসে পড়েছে। এতে কেউ হতাহত হয়নি।

Comments

comments