আ.লীগ প্রার্থীর জনসভায় বোমা হামলা, আহত ২০

বরগুনার বামনা উপজেলায় নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনি জনসভায় বোমা নিক্ষেপ করেছে দুর্বত্তরা। এতে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ছয়জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বুধবার রাত পৌনে নয়টার দিকে উপজেলার তেলিভাড়ানী বাজারে জনসভা চলাকালীন এ ঘটনা ঘটে।

জনসভায় উপস্থিত প্রত্যক্ষদর্শী বামনা উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান খান হিমেল জানান, ওই স্থানে নির্ধারিত সময়ে জনসভা শুরু হয়ে যথারীতি বক্তৃতা পর্ব চলছিল। রাত পৌনে নয়টার দিকে আমুয়া খালের অপর প্রান্ত থেকে পর পর তিনটি হাত বোমা নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা।

আতঙ্কিত লোকজন ছোটাছুটি করে জনসভা ত্যাগ করে। এতে অন্তত ২০ জন আহত হন। বোমার আঘাতে ইউনুস (৫৮) আবদুর রশীদ পালোয়ান (৪৫) রিয়াজুল ইসলাম (২৫) কেশব চন্দ্র দাস (৪২) আবদুর রশীদ (৪৫) ও নুরুল ইসলামসহ অনেকে আহত হন। এদেরকে উদ্ধার করে বামনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

চিকিৎসকদের পরামর্শে হানিফ ও রিয়াজুলকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বামনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাসুদুজ্জামান বলেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আলামত সংগ্রহ করেছে। ওই এলাকায় পুলিশি টহল দেয়া হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের খুঁজে বের করতে পুলিশ কাজ করছে।’

বামনা উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সাইতুল ইসলাম লিটু মৃধা। এ ঘটনায় তিনি সামন্য আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

লিটু মৃধা বলেন, ‘প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সৈয়দ মানজুরুর রব মূর্তজা হাসানের (দোয়াত কলম) সমর্থকরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে। মর্তুজা হাসান জামায়াত-বিএনপি সমর্থিত। তার সমর্থনে শিবির-বিএনপির লোকজন এ ঘটনা ঘটিয়েছে।’

Comments

comments