অবশেষে বনানী লেকেই ভেসে উঠলো সোহাগের মরদেহ

নিখোঁজের পর থেকে দুদিন বনানী লেকে খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি কিশোর সোহাগকে (১৬)। অবশেষে বুধবার ভেসে উঠলো নিখোঁজ কিশোর সোহাগের মরদেহ।

ফায়ার সার্ভিসের দুদিনের অভিযানে না পাওয়া গেলেও বুধবার দুপুরে বনানী লেকে তার মরদেহটি ভেসে ওঠে। পরে স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসে ফোন দিলে দুপুর ১টা ৫ মিনিটে তাকে উদ্ধার করা হয়।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার কামরুল হাসান জাগো নিউজকে বলেন, ‘দুপুরে সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে তার মরদেহ উদ্ধার করে। এরপরই মরদেহ বনানী থানা পুলিশে হস্তান্তর করা হয়।’

এর আগে ৪ মার্চ সোমবার বনানী লেকের ১১ নম্বর রোডের আনসার ক্যাম্পের পাশের অংশে সোহাগ ডুবে যায় বলে জানান স্থানীয়রা। তৎক্ষণাৎ তারা ফায়ার সার্ভিস ও জরুরি সেবা ‘৯৯৯’-এ ফোন দেন। এর কয়েক মিনিট পর থেকেই তাকে উদ্ধারে কাজ শুরু করে ফায়ার সার্ভিস।

সেদিন রাতে অভিযানে তাকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়। মঙ্গলবার সকালে আবারও অভিযান চালায় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। বিকেলে সাত্তার নামে ৩৫ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে তারা।

সেদিন রাতে সোহাগের পানিতে পড়ার বিষয়ে স্থানীয়রা জানিয়েছিল, সোহাগসহ তিন কিশোর বনানী লেকের পাড়ে বসা ছিল। হঠাৎ এক ব্যক্তি তাদের ধাওয়া দিয়ে সে দৌড়ানোর সময় লেকে পড়ে যায়। এরপর থেকে আর তাকে পাওয়া যায়নি।

সোহাগ কড়াইল বস্তির বউবাজার এলাকায় থাকতো বলে জানা গেছে

Comments

comments