গুপ্তচর বৃত্তির অভিযোগে দুই সিনিয়র পাকিস্তানি সেনা কর্মকর্তার কোর্ট মার্শাল

স্পাই ক্রোনিকলস গ্রন্থ এবং আসাদ দুররানি (বামে) ও এ এস দওলাত (বামে)

গুপ্তচর বৃত্তির অভিযোগে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর দুই সিনিয়র কর্মকর্তার কোর্ট মার্শালের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আর পাকিস্তান গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের সাবেক প্রধান লে. জেনারেল (অব.) আসাদ দুররানির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তার শাস্তি হয়েছে।

ডিরেক্টর জেনরেল ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশন্স (আইএসপিআর) মেজর জেনারেল আসিফ গফুর শুক্রবার বলেন, ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’-এর সাবেক প্রধান এ এস দওলাতের সাথে যৌথভাবে একটি গ্রন্থ লিখে জেনারেল দুররানি সামরিক বাহিনীর আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন।

কাশ্মিরের পুলওয়ামায় ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর ওপর আত্মঘাতী হামলার ফলে সৃষ্ট উত্তেজনাকর পরিস্থিতির মধ্যে রাওয়ালপিন্ডিতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, জেনারেল আসাদ দুররানি সামরিক আচরণ বিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে প্রমাণিত হয়েছে। তার পেনশন ও অন্যান্য সুবিধা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, গুপ্তচর বৃত্তির অভিযোগে দুজন সিনিয়র সামরিক কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেনাপ্রধান তাদের কোর্ট মার্শালের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, ওই দুই কর্মকর্তা কোনো নেটওয়ার্কের অংশ নন।
গত বছর দি স্পাই ক্রোনিকলস প্রকাশের পর লে. জেনারেল (অব.) আসাদ দুররানির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়। তাকে মে মাসে জেনারেল হেডকোয়াটার্সে তলব করা হয। সেখানে তাকে বইটি লেখা নিয়ে তার অবস্থান ব্যাখ্যা করতে বলা হয়।

সূত্র : দি নিউজ

Comments

comments