বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে সৈয়দ আশরাফের বোন

কিশোরগঞ্জ-১ (কিশোরগঞ্জ সদর-হোসেনপুর) আসনের পুনঃনির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র রোববার দুপুরে যাচাই-বাছাই সম্পন্ন হয়েছে।

যাচাই-বাছাইয়ে সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ছোট বোন আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপির মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে গণতন্ত্রী পার্টি মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন ও জাতীয় পার্টি মনোনিত প্রার্থী মো. মোস্তাইন বিল্লাহ মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়।

রোববার দুপুর ১২টার দিকে কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসারের সম্মেলন কক্ষে মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই শেষে জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং অফিসার মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী এই ঘোষণা দেন।

এছাড়া বিএনপির নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্ট ও ২০ দলীয় জোট ভোট বর্জন করায় এ আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন ডা. সৈয়দা জাকিয়া নূর লিপি।
যে কারণে বাদ হলো দুই প্রার্থীর মনোনয়ন

গণতন্ত্রী পার্টির মনোনীত প্রার্থী দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট ভূপেন্দ্র চন্দ্র ভৌমিক দোলনের হলফনামায় ‘স্বাক্ষর’ না থাকায় এবং জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী জাতীয় মৎস্যজীবী পার্টির সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মোস্তাইন বিল্লাহর শিক্ষাগত যোগ্যতা ‘স্নাতক’ থাকার পরও মনোনয়নপত্রে নিজেকে ‘স্বশিক্ষিত’ উল্লেখ করায় তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনসহ পরপর পাঁচবার কিশোরগঞ্জ-১ আসন থেকে নির্বাচিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জন প্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম ৩ জানুয়ারি নতুন সংসদের শপথ অনুষ্ঠানের দিন রাতে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাইল্যন্ডের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। পরে এ আসনে পুনঃনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

তফসিল অনুযায়ী, ২৮ ফেব্রুয়ারি এ আসনে ভোটগ্রহণ করার কথা রয়েছে।

Comments

comments