স্বাধীন মত নিয়ন্ত্রণে থ্রিজি ও ফোরজি বন্ধ করলো সরকার

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে  ক্ষমতাসীন সরকারের নির্দেশে সাধারণ ভোটারদের মতামত প্রকাশে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ করে দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) ।

আজ রাত ১০.৩৫ মিনিটে ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার এমন খবর প্রকাশ করে। সেখানে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) সব মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরকে তাদের দেশে থ্রিজি এবং ফোরজি সেবা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে।

বিটিআরসি সকল মোবাইল অপারেটরকে আজ রাত থেকে  টু-জি সেবা (ভয়েস এবং তথ্য উভয়ই) ছাড়া সকল অপারেটর বন্ধের এ নির্দেশনা মেনে চলতে বলেন।

খবরে বলা হয়, শুধুমাত্র টু-জি সেবা (ভয়েস এবং তথ্য উভয়ই) চালু থাকবে, বিটিআরসির পক্ষ থেকে সমস্ত মোবাইল অপারেটরকে এই নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য বলা হয়।

অন্য কোন নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত সকল মোবাইল অপারেটরদেরকে নির্দেশনা মেনে চলতে বলা হয়েছে।

এদিকে এ খবর প্রকাশের পর থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক সমালোচনার শুরু হয়েছে। তারা বলছেন, সরকার সাধারণ মানুষের মতামত প্রকাশকে বাধাগ্রস্ত করতেই এ অন্যায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটি অযৌক্তিক। সরকারের উচিৎ ইন্টারনেটের গতি না কমিয়ে বরং রাজনৈতিক সন্ত্রাসের গতি কমানো, যা একটি সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের জন্য বেশী গুরুত্বপূর্ণ।

Comments

comments