নাটোরে প্রতিমন্ত্রী পলকের নৃশংসতার শিকার জামায়াত নেতা বেলাল

  • গুলি করে জামায়াত নেতাকে ফেলে রাখা হলো রাস্তার পাশে

নির্বাচনী মাঠে ভীতির সঞ্চার করে বিরোধী শিবিরে প্রভাব ফেলতে জামায়াতে ইসলামীর নাটের জেলা আমীর অধ্যাপক বেলাল উজ্জামানকে নৃশংসভাবে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল ১০ টার দিকে জামায়াত নেতা বেলাল উজ্জামানকে তার নিজ বাসা সিংড়া উপজেলার শেরকোল থেকে সাদা পোষাকে একদল দুর্বৃত্ত মাইক্রোবাসে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। এবং গুলি করে নলডাঙা এলাকায় ফেলে রেখে যায় তারা।

দুপুর ১২ টার দিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নলডাঙার এক নির্জন স্থান থেকে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় জনগণ।

দীর্ঘসময় রক্তক্ষরণের ফলে জামায়াত নেতা বেলাল উজ্জামানের অবস্থা এখন আশঙ্কাজনক।

তাকে উদ্ধারকারী জনসাধারণের সাথে কথা বলে জানা যায়, বেলাল উজ্জামানের দুই পায়ে গুলি করা হয়েছে। প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় নিস্তেজ অবস্থায় ঐ স্থানে পড়েছিলেন তিনি। প্রথমে উদ্ধারকারীরা মৃত ভাবলেও পরে পরীক্ষা করে বুঝতে পারেন বেঁচে আছেন তিনি। পরে তারা দ্রুত স্থানীয় এক হাসপাতালে নিয়ে যান।

স্থানীয় বিএনপি-জামায়াতের নেতা-কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রতিমন্ত্রী পলক একতরফাভাবে এলাকায় ব্যাপক প্রচারণা চালালেও স্থানীয় জনগণের সরকারবিরোধী মনোভাবের কারণে দুশ্চিন্তায় আছেন তিনি। তাই সাধারণ ভোটারদের মধ্যে ভীতি সৃষ্টি করতেই প্রতিমন্ত্রী পলক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপথগামী সদস্যদের সহযোগিতায় এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

Comments

comments