চট্টগ্রাম-১৬: জনপ্রিয়তায় আত্মবিশ্বাসী জামায়াত নেতা জহিরুল ইসলাম

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান থেকে পদত্যাগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর আমির মো. জহিরুল ইসলাম।

জামায়াতের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা জানান, এবারের সংসদ নির্বাচনে বাঁশখালী উপজেলা জামায়াতের আমির জহিরুল ইসলাম জোটের মনোনয়ন চেয়ে পাননি। তাই তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ জন্য উপজেলা চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের একজন এবং বিএনপির দুজনকে হারিয়ে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে আত্মবিশ্বাসী জহিরুল ইসলাম। এ কারণে তিনি স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নেন। তাঁর পক্ষে জামায়াতেরও সমর্থন আছে।

২০১৪ সালের ১৩ মার্চ অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মো. জহিরুল ইসলাম ৬৬ হাজার ৩৪২ ভোট পেয়ে চেয়ারম্যান হন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী খোরশেদ আলম পেয়েছিলেন ৫২ হাজার ৮৯০ ভোট।

আর বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আলমগীর কবির চৌধুরী পেয়েছিলেন ২১ হাজার ৩৬৫ ভোট। বিএনপির আরেক প্রার্থী লিয়াকত আলী পেয়েছিলেন ১৮ হাজার ১৩৭ ভোট।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহনের ব্যাপারে মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘২০-দলীয় জোটের মনোনয়ন চেয়েছি। কিন্তু পাইনি। তাই স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘উপজেলা নির্বাচনে আমি অনায়াসেই জিতেছি। এমপি নির্বাচনেও আল্লাহর রহমতে জিতব। কারণ, জামায়াতের বাইরেও আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির অনেকই আমাকে ভোট দেবে। আমাদের চিন্তা, কেন্দ্র পাহারা দেওয়া নিয়ে। জনগণ কেন্দ্রে যেতে পারলে আমার জয় কেউ ঠেকাতে পারবে না।’

Comments

comments