নাটোরে হাত-পায়ের রগ কেটে ও কুপিয়ে যুবলীগ নেতাকে হত্যা

নাটোরের লালপুরে জাহারুল ইসলাম নামে এক যুবলীগ নেতার হাত-পায়ের রগ কেটে ও মাথায় কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। একই ঘটনায় জাহারুল গ্রুপের দুই সমর্থক গুরুতর আহতাবস্থায় রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার গোপালপুর সুগার মিলের ২নং গেটের পশ্চিমে বাহাদিপুর লেবার লাইন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বাহাদিপুরে নর্থ বেঙ্গল সুগার মিলের ফটকের সামনে উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহারুল ইসলাম (৩৮) দাঁড়িয়ে ছিলেন।

এ সময় যুবলীগে তার প্রতিপক্ষ স্থানীয় আওয়ামী লীগ সমর্থিত গোপালপুর পৌরসভার কমিশনার মাসুদ রানা, যুবলীগ কর্মী মঞ্জুসহ ১০-১২ জন ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

হামলাকারীরা তার দুই হাত ও দুই পায়ের রগ কেটে দেয়। একইসঙ্গে তার মাথায় একাধিক কোপ দেয়।

পরে স্থানীয় লোকজন তাকে মুমূর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রামেক হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। একই ঘটনায় জাহারুল গ্রুপের সমর্থক বাওড়া এলাকার বাবলু হোসেনের ছেলে প্রান্ত ও বিরোপাড়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে তুহিন গুরুতর আহতাবস্থায় রামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

লালপুর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল জানান, ঘটনাটি শোনার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পূর্ব বিরোধের জের ধরে ঘটনাটি ঘটতে পারে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

 

সূত্র: শীর্ষনিউজ

Comments

comments