সফল হতে দশ কাজ

জীবনযাপনের ভিন্নতা সবারই থাকে। আর ভিন্নতা থাকলেও অধিকাংশ মানুষ চায় সফল হতে। সফল হতে হলে তাই দরকার সুশৃঙ্খল জীবনযাপন। জীবনযাপনের কিছু পরিবর্তন, কিছু অভ্যাস আপনাকেও সফলতার দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে পারে।

সফল হতে জীবনযাপনের এমন দশটি বিষয় পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো-

১. ধূমপান ত্যাগ: আপনি যদি ধূমপান করে থাকেন, তবে আপনার ভালোর জন্যই এখনই এ অভ্যাস ত্যাগ করুন। ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এ তথ্য সবারই জানা। তবুও অনেকেই ধূমপানে আসক্ত। অনেক মানুষের ক্ষেত্রেই হয়তো ধূমপানের অভ্যাস ত্যাগ করা খুবই কষ্টকর। কিন্তু নিজের শরীর ও স্বাস্থ্যের জন্যই এ অভ্যাস ত্যাগ করা জরুরি।

২. সময়মতো ঘুমাতে যান, সময়মতো ঘুম থেকে উঠুন: নিয়মিত ঠিক সময়ে ঘুমাতে যাওয়া এবং ঠিক সময়ে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যাস আপনাকে সুস্থ রাখবে। রাতজাগার কারণে এ অভ্যাসের ব্যত্যয় ঘটলে আপনার শরীরের ক্ষেত্রে ভিন্ন চক্রের ঝুঁকি বেড়ে যায়। সারাদিন কাজের মাঝে ও দিনশেষে আপনার শরীরে আসবে ক্লান্তি। ফলে কোনো কাজে মনোনিবেশ করা খুবই কঠিন হয়ে যাবে।

৩. প্রাত্যহিক শরীরচর্চা: প্রাত্যহিক শরীরচর্চায় আপনি থাকবেন সুস্থ, সবল। ওয়েস্টার্ন কেপ বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালিস্টার লংম্যান বলছেন, যতটুকু সম্ভব আপনার শরীরকে অনুশীলনের মধ্যে রাখুন। হাঁটা, সাঁতার কাটা, সাইকেল চালানো, নাচ যে কোনোভাবেই আপনি নিয়মিত অনুশীলন করতে পারেন। এতে আপনার শরীর যেমন ফিট থাকবে, তেমনি কাজের ক্ষেত্রে বাড়বে এনার্জি।

৪. ডায়েরি লিখতে পারেন: নিয়মিত ডায়েরি লেখার অভ্যাস তৈরি করতে পারেন। জীবনের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো লিখে রাখুন। ভবিষ্যতে এগুলো আপনার সহায়ক হবে।

৫. অর্থ সঞ্চয়: আপনার সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য অর্থ সঞ্চয় খুবই জরুরি। অর্থ সঞ্চয় করলে আপনার স্বচ্ছলতা আসবে। এ অভ্যাস আপনাকে মিতব্যয়ী করতে পারে।

৬. জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণ করুন: সফলতার জন্য লক্ষ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার জীবনের লক্ষ্য নির্ধারণ করুন। নিজেকে কি হিসেবে দেখতে চান- নিজেকেই এ প্রশ্ন করুন। তারপর আপনার লক্ষ্য নির্ধারণ করুন। লক্ষ্য নির্ধারণ করলে লক্ষ্য অনুযায়ী কাজ শুরু করুন।

৭. যা আছে তাই নিয়ে খুশি থাকুন: আপনার জীবনে সন্তুষ্টির জন্য কি প্রয়োজন? অবশ্যই সুখী জীবন। আপনার জীবন সুখী করতে যা আছে তাই নিয়ে খুশি থাকুন। যা নেই, তা নিয়ে আফসোস করবেন না।

৮. সবাইকে সন্তুষ্ট করতে যাবেন না: সবাইকে সন্তুষ্ট করার চিন্তা বাদ দিন। সবাইকে সন্তুষ্ট রাখা প্রায় অসম্ভব। নিজেকে নিয়ে বেশি বেশি ভাবুন। নিজেকে সময় দিন। পরিবার, বন্ধু, আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখুন।

৯. অন্যের সঙ্গে নিজের তুলনা করবেন না: অন্যের সঙ্গে নিজের তুলনা না করাই ভালো। আপনি যা করতে পেরেছেন তাই নিয়েই খুশি থাকুন। অন্যেরা কি করেছে বা কি করছে, এ নিয়ে চিন্তা না করাই ভালো। নিজেকে গুরুত্ব দিন। নিজের কাছে নিজের গুরুত্ব বাড়ান।

১০. নিজের ভুল সংশোধন করুন: জীবনে চলতে গেলে অনেক রকম ভুল-ভ্রান্তি তৈরি হবে। ভুলগুলো শনাক্ত করুন। আগের ভুল থেকে শিক্ষা নিন। সেগুলো সংশোধন করুন। আপনার ভুলগুলোই আপনার সঠিক কাজের পথ তৈরি করবে।

Comments

comments