কোটা আন্দোলনের কর্মীকে মধ্যরাতে বাসা থেকে তুলে নেওয়ার অভিযোগ

কোটা আন্দোলনের কর্মী তারেক আজিজ

গাজিপুর থেকে ঢাকা পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটের মেকানিক্যাল ডিপার্টমেন্টের ৫ম পবের্র ছাত্র, কোটা আন্দোলনের কর্মী তারেক আজিজকে সাদা পোশাকে পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টায় এ ঘটনা ঘটে।

গ্রেপ্তার হওয়া তারিক আজিজের মা রেহানা আক্তার জানায়, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টায় তাদের কলেজ গেট এলাকার বাসায় আট থেকে দশ জন সাদা পোষাকের পুলিশ এসে পরিবারের সবার সামনে থেকে আজিজকে গ্রেপ্তার করে।

এসময় তাদের পরিচয় জানতে চাইলে, তারা নিজেদেরকে টঙ্গী থানার পুলিশ কর্মকর্তা বলে নিজেদের পরিচয় দেয়। পরে তিনিসহ কয়েকজন টঙ্গি থানায় তার সাথে যোগাযোগ করতে গেলে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তারা আজিজকে গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকার করে।

আসে পাশের কয়েকটি থানায়ও যোগাযোগ করেও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। এদিকে পরিবার ও তার সহপাঠীদের কাছ থেকে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তারেক আজিজ কোটা আন্দোলনের সক্রিয় কর্মী ছিল।আন্দোলনের শুরু থেকেই তাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল।

ছেলের সন্ধান দাবী করে আজিজের মা বলেন, গভীর রাতে আমাদের চোখের সামনে থেকেই তাকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধা দেখিয়েছি। কিন্তু পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের কথা বেআইনি ভাবে অস্বীকার করছে। যা আমরা কোন ভাবেই প্রত্যাশা করিনি।

এভাবে গ্রেপ্তারের পর অস্বীকার করে বহু ছাত্রের উপর নির্যাতন চালানো হয়েছে। অনেক ছাত্রকে বন্দুক যুদ্ধের নাটক সাজিয়ে হত্যা পর্যন্ত করা হয়েছে। ফলে আমরা এখন গভীর উদ্ধিগ্ন হয়ে আছি। আমি অবিলম্বে আমার নিরপরাধ সন্তানের সন্ধান ও মুক্তি চাই।

Comments

comments